মঙ্গলবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
  • হোম » আরও সংবাদ » সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শরণখোলার জেলে


সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শরণখোলার জেলে





বাগেরহাট প্রতিনিধি : দীর্ঘ ১১ বছর নিখোঁজের পরে অপ্রকৃতিস্থ অবস্থায় বাড়ি ফিরেছেন শরণখোলার দক্ষিণ আমড়াগাছিয়া গ্রামের জেলে ফুল মিয়া মোল্লার ছেলে শহীদুল মোল্লা (৪২)। বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর সাগরের ছাপড়াখালী এলাকায় সিডরের কবলে পড়ে জেলে শহীদুল ও তার পিতা এবং সঙ্গীয় আরো ৩ জেলে ট্রলারসহ নিখোঁজ হন। গত সোমবার বিকেলে আমড়াগাছিয়া বাজারে তাকে স্বজনরা দেখতে পেয়ে বাড়িতে নিয়ে যান।

ফিরে আসা জেলে শহীদুলের বড় বোন মঞ্জু বেগম জানান, ২০০৭ সালের নভেম্বর মাসের প্রথম দিকে তার ভগ্নিপতি পান্না ফরাজীর ট্রলারে করে ছোট ভাই শহীদুলসহ আরো ৩ জন জেলে সাগরে মাছ ধরতে যান। হঠাৎ করে ১৫ নভেম্বর সিডরের জলোচ্ছাসে তারা ট্রলারসহ নিখোঁজ হয়ে যান। ওই ঝড়ে অন্য ট্রলারে থাকা তার পিতা ফুলমিয়াও নিখোঁজ হন। ঝড়ের পরে বহু খোঁজ করে তাদের কোনো সন্ধান না পেয়ে আমরা ধরেই নিয়েছিলাম তারা আর বেঁচে নেই। দীর্ঘ ১১ বছর পরে গত ১২ নভেম্বর বিকেলে আমড়াগাছিয়া বাজারে শহীদুলকে অপ্রকৃতিস্থ অবস্থায় ঘোরাঘুরি করতে দেখে স্বজনরা তাকে বাড়ি নিয়ে যায়।

শুক্রবার বিকেলে রায়েন্দা বাজারে শহীদুলের ভগ্নিপতি পান্না ফরাজীর বাসায় বসে অসংলগ্নভাবে কথা বলছিলেন শহীদুল। তিনি জানান, এতদিন তিনি ভারতের পাটগ্রাম এলাকার রশিদ খানের বাড়িতে গরুর রাখালের কাজ করতেন। ভারতে তিনি কিভাবে গেলেন তা তার মনে নেই।

ভগ্নিপতি পান্না ফরাজী জানান, শহীদুল নিখোঁজের সময় তার বাড়িতে স্ত্রীসহ দুই ছেলে ও দুই কন্যা রেখে যায়। ইতোমধ্যে মেয়েদের বিবাহ হলেও তার স্ত্রী মাসুমা বেগম দীর্ঘ ৩-৪ বছর ধরে জীবিকার প্রয়োজনে ভারতের বেঙ্গালোরে মানুষের বাসাবাড়িতে ঝিয়ের কাজ করছেন। শহীদুলের স্ত্রীকে তার স্বামী ফিরে আসার খবরটি জানানো হয়েছে। তিনি শিগগিরই দেশে ফিরে আসবেন। শহীদুলকে দেখতে তার বাড়িতে মানুষ ভিড় করছে বলে পান্না জানান।



প্রকাশক ও সম্পাদক : শাহিন রহমান

অফিস : ১১৪ নাখালপাড়া, ঢাকা-১২১৫
Email : prothomshomoy@gmail.com