মঙ্গলবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৮


চট্টগ্রামে স্বল্প পরিসরে ইভিএম : ইসি সচিব





চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে স্বল্প পরিসরে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। শনিবার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে নগরের কাজীর দেউড়ির চট্টগ্রাম লোকপ্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এ কথা জানান তিনি।

নির্বাচন কমিশন সচিব বলেন, স্বল্প পরিসরে ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত হলেও কোন কোন আসনে বা কেন্দ্রে ব্যবহার হবে সে বিষয়ে কমিশন এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। কমিশনের অভ্যন্তরীণ আলোচনার পর র‌্যান্ডমলি এর ব্যবহার হতে পারে।

নির্বাচন আর পেছানো হবে না জানিয়ে ইসি সচিব বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন আর পেছানো হবে না। পেছানোর কোনো সুযোগও নেই। তাই ৩০ ডিসেম্বরই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এটাই কমিশনের সিদ্ধান্ত।

তিনি আরও বলেন, অবৈধ অস্ত্র ও সন্ত্রাসী গ্রেফতার একটি চলমান প্রক্রিয়া। যদি এটি দীর্ঘদিন ধরে না হতো তাহলে নির্বাচনের আগে নতুন করে শুরু করতে হতো। কিন্তু আমাদের দেশে র‌্যাব-পুলিশের অভিযানে অনেক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার হয়েছে, অনেকে বন্দুকযুদ্ধে মারাও গেছে। সন্ত্রাসীরা নিয়মিত গ্রেফতার হচ্ছে। ইতোমধ্যে সন্ত্রাসী গ্রেফতার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের জন্য আইজিপিকে নির্বাচন কমিশন নির্দেশনা দিয়েছে।

ইসি সচিব বলেন, পোস্টার-ব্যানার সরাতে ইতোমধ্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আগামীকাল পোস্টার ব্যানার অপসারণের শেষ তারিখ। ১৮ নভেম্বরের মধ্যে যদি অপসারণ না হয় তাহলে ১৯ নভেম্বর থেকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেক্ষেত্রে সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের মাধ্যমে এসব নামানো হবে।

হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, সবার অংশগ্রহণমূলক, একটি সুন্দর, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। যে নির্বাচন হবে উৎসবমুখর পরিবেশে। সেখানে সব রাজনৈতিক দল অংশ নেবে। আমাদের দেশের ভোটাররা ভোটকে উৎসব হিসেবে নেয়। ৩০ ডিসেম্বর দিনটি ভোট উৎসবে পরিণত হবে বলে নির্বাচন কমিশন আশা করে।



প্রকাশক ও সম্পাদক : শাহিন রহমান

অফিস : ১১৪ নাখালপাড়া, ঢাকা-১২১৫
Email : prothomshomoy@gmail.com