মঙ্গলবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৮


নতুন স্কিমে গ্রামীণ হবে ০১৩ : বাংলালিংক ০১০





নিজস্ব প্রতিবেদক : নতুন স্কিম পেতে যাচ্ছে মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন এবং বাংলালিংক। গ্রামীণফোন সূত্রে জানা গেছে, নতুন করে আবেদন করলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়ে অপারেটরটিকে নম্বর স্কিম দেওয়া হবে। এদিকে বাংলালিংকও নতুন নম্বর স্কিমের আওতায় নতুন নাম্বার দেওয়া হতে পারে। ‘০১৭’- এর পাশাপাশি গ্রামীণফোন নতুন কোড নম্বর (নম্বর স্কিম) ‘০১৩’ বরাদ্দ পেতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে। আর বাংলালিংক ‘০১৯’ এর সঙ্গে পেতে যাচ্ছে ‘০১০’ নম্বর।

২০১৬ সালের আগস্টে গ্রামীণফোন ‘০১৩’ নম্বর স্কিম বরাদ্দ পায়। তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসি এই নম্বর স্কিম বরাদ্দ দেয়। কিন্তু বরাদ্দ পেলেও সে সময় গ্রামীণফোন ‘০১৩’ চালুর চূড়ান্ত অনুমোদন পায়নি।

গ্রামীণফোনের হেড অব এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স সূত্রে জানা যায়, আবারও আবেদন করার পর তাদের আশ্বস্ত করা হয়েছে এবার আবেদন করলে নতুন নম্বর স্কিম বরাদ্দ পাবে গ্রামীণফোন। ‘০১৭’ নম্বর স্কিমে কিছু নম্বর এখনও খালি রয়েছে রিসাইক্লিংয়ের পর। সেগুলো দিয়েই এখন কাজ চলছে। তবে আর বেশিদিন সেটা থাকবে না।

গ্রামীণ নতুন নম্বর স্কিমের বিপরীতে ২ কোটি নম্বর বরাদ্দ চেয়েছিল। এবার চূড়ান্ত অনুমোদন পেলে অপারেটরটির ‘০১৩’-এর বিপরীতে ১০ কোটি নম্বর পেতে পারে বলে জানা গেছে।

এদিকে বাংলালিংক নতুন নম্বর স্কিম চেয়ে ২০১৬ সালে ‘০১০’ নম্বর স্কিমের জন্য আবেদন করে বিটিআরসিতে। ওই আবেদনের চিঠিতে বাংলালিংক উল্লেখ করেছিল, অপারেটরটির ২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর গ্রাহক ৩ কোটি ১০ লাখ হলেও টেলিকম-এর সময় থেকে অপারেটরটির ৮০ শতাংশ নম্বর ব্যবহার বা বিক্রি হয়ে গেছে। অবশিষ্ট ২০ শতাংশ নম্বরও শেষ হয়ে যাবে। এ কারণেই তাদের ‘০১০’ নাম্বার প্রয়োজন। বাংলালিংকের হেড অব করপোরেট অ্যাফেয়ার্স সূত্রমতে, তখন ০১০ নম্বর স্কিম চাওয়া হয়েছিল, এবারও আনুষ্ঠানিকভাবে তাই চাওয়া হবে।

একটি নম্বর স্কিমের বিপরীতে সংশ্লিষ্ট অপারেটর ১০ কোটি সিম নম্বরসহ বিক্রি করতে পারে, যার নম্বরগুলো হয় ১১ ডিজিটের। ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (আইটিইউ) এই স্ট্যান্ডার্ডই প্রদান করে।



প্রকাশক ও সম্পাদক : শাহিন রহমান

অফিস : ১১৪ নাখালপাড়া, ঢাকা-১২১৫
Email : prothomshomoy@gmail.com